প্রচ্ছদ লাইফস্টাইল লুকানো দাগ দূর করতে চান?

লুকানো দাগ দূর করতে চান?

158
0

ঘড়ি বা স্যান্ডেলের ফিতা বরাবর এমন দাগ তো হতেই পারে, হতে পারে জামা বা ব্লাউজের হাতা বরাবর ত্বকেও। কাপড়, ঘড়ি বা স্যান্ডেলের ফিতার আড়ালে থাকে ত্বকের যে অংশ, তা রোদে কম পোড়ে বলে সাদাটে মনে হয়। সাদাটে দাগটা আসলে ‘দাগ’ নয়, ‘দাগ’ হলো গাঢ় অংশটা।

এমন ‘দাগ’ দূর করতে পরামর্শ জেনে নিন-

l দুধ ও মধুর প্যাক লাগাতে পারেন প্রতিদিন। মধুতে অ্যালার্জি থাকলে শুধু দুধ ব্যবহার করতে পারেন। দুধে ল্যাকটিক অ্যাসিড থাকে, যা ত্বকের দাগ দূর করতে সাহায্য করে।

l ফ্রিজে বরফ বানানোর ছাঁচে শসার রস রেখে কিউব তৈরি করা যায়। শসার রসের এই কিউব প্রতিদিন ব্যবহার করতে পারেন।

l টমেটোর রসের সঙ্গে একটু মধু মিশিয়ে ব্যবহার করা যায় প্রতিদিন। মধুতে অ্যালার্জি থাকলে তা বাদ দিয়ে শুধু টমেটোর রস ব্যবহার করুন।

l ২ টেবিল চামচ টক দই ও ২ টেবিল চামচ শসার রস একসঙ্গে মিশিয়ে প্যাক তৈরি করতে পারেন। সপ্তাহে ২-৩ দিন ব্যবহার করুন।

 l এক কাপের সিকি ভাগ পরিমাণ দুধ, জাফরানের ৪-৫টি রেণু ও ১ চা-চামচ ওট মিশিয়ে মাস্ক তৈরি করতে পারেন। সপ্তাহে ২-৩ দিন ব্যবহার করতে পারেন।

l তৈলাক্ত ত্বকের জন্য টক দই, টমেটোর রস ও ২-৩ ফোঁটা লেবুর রস দিয়ে প্যাক বানানো যায়। সপ্তাহে ২-৩ দিন ব্যবহার করুন।

l টমেটোর রস ও মসুর ডাল বাটা বা গুঁড়ার সঙ্গে একটু মধু মিশিয়ে স্ক্রাব হিসেবে সপ্তাহে এক দিন ব্যবহার করুন। এ ক্ষেত্রে মধুতে অ্যালার্জি থাকলে তা উপকরণের তালিকা থেকে বাদ দিন।

l কাঁচা হলুদ ও দুধের সর মিশিয়ে প্যাক তৈরি করে সপ্তাহে এক দিন ব্যবহার করতে পারেন। দুধের সর না থাকলে দুধ ব্যবহার করা যায়। হলুদ যদি আপনার ত্বকে মানিয়ে যায়, কেবল সে ক্ষেত্রেই এই প্যাক ব্যবহার করুন। অতিরিক্ত পোড়া ভাব অর্থাৎ, ত্বকের সাদাটে অংশের সঙ্গে গাঢ় অংশের পার্থক্য খুব বেশি হলে প্যাকে ২-৩ ফোঁটা লেবুর রস যোগ করে নিতে পারেন।

উত্তর দিন

আপনার মন্তব্য যুক্ত করুন
আপনার নাম লিখুন